খাগড়াছড়ি’র চাকমা একাডেমী বাস্তবায়নে চাকমা হরফে লেখা ৩টি বই মোড়ক উন্মোচন

0

khagr
খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি : খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলায় চাকমা একাডেমী বাস্তবায়নে চাকমা হরফে লেখা ৩টি বই মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে । রোববার সকালে পর্যটন মোটেল মিলনায়তনে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা জাবারাং কল্যান সমিতি’র সহযোগীতায় ইউএনডিপি-সিএইচটিডিএফ’র অর্থায়নে এ আয়োজন করা হয় । প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি ২৯৮নং আসনে জাতীয় সংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা । চাকমা একাডেমী’র সভাপতি সন্তোষিত চাকমা বকুল সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, সাবেক অধ্যক্ষ ড.বোধিস্বত্ব দেওয়ান, ভারত প্রত্যাগত শরনার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কৃষ্নচন্দ্র চাকমা, ইউএনডিপি-সিএইচটিডিএফ’র প্রতিনিধি সুভাষ দত্ত ।
জাবারাং পরিচালক বিনোদন ত্রিপুরা উপস্থাপনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন মারমা উন্নয়ন সংসদ কেন্দ্রীয় কমিটি’র সাধারন সম্পাদক সাথোয়াইপ্র“ মারমা, বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যান সংসদের কেন্দ্রীয় কমিটি’র সাধারন সম্পাদক বিবিসুৎ ত্রিপুরা সুকান্ত, জাবারাং কল্যান সমিতি’র নির্বাহী পরিচালক মথুরা বিকাশ ত্রিপুরা, চাকমা একাডেমী’র সহ-সভাপতি আর্য্য মিত্র চাকমা, রাংগামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি ইনষ্টিটিউট’র গবেষনা কর্মকর্তা শুভ্র জ্যোতি চাকমা প্রমূখ। এসময় রাংগামাটি ও বান্দরবানে বিভিন্ন আদিবাসী জনগোষ্ঠি’র প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন ।
বক্তায় প্রধান অতিথি কুজেন্দ্র বলেন আদিবাসী জনগোষ্ঠি সকলের ঐক্যের কোন বিকল্প নেই । কৌশলে সরকারকে সহযোগীতা করে ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি সুরক্ষায় প্রয়োজনে এগিয়ে যেতে হবে । পাহাড়ি সকলের আদিবাসী’র প্রানের দাবী থাকলেও অপ্রত্যাশিত ভাবে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি’র নামকরন পরবর্তীতে আশা প্রতিফলন ঘটবে । সুখ-শান্তি, ভাল চিন্তায় অনিত্য জায়গায় নিত্য ফল পায় । ৪৫টি আদিবাসী জনগোষ্ঠি আশাব্যন্জক প্রক্রিয়ায় নতুন আশা ও নতুন সম্ভাবনা প্রতিফলন ঘটেছে । সংস্কৃতির নিজস্ব ভাষাকে টিকিয়ে রাখার স্বার্থে ৩টি বইয়ের মধ্যে সীমাবদ্ধতা না রেখে ব্যবহারিক মনোভাব বেশী করে কাজে লাগাতে হবে। এখন চাকমা অক্ষরে লেখা মোড়ক উন্মোচন সফল হয়েছে । পরবর্তীতে মারমা, ত্রিপুরা হরফ লেখার ভাষা অন্ততঃ উপস্থিত অতিথিবর্গরাসহ প্রকাশে আরো বেশী ভূমিকা রাখতে পারবে । পুরনো বছরকে ফেলে নতুন বছরের কুসুমা রাস্তা সুখী ও সুন্দর হয়, যেন উন্নয়নে বাধা প্রদান করে চিৎপদাং হয়ে থাকা অবান্তর । তবে সাবেক অধ্যক্ষ বোধিস্বত্ব দেওয়ান চাকমা লেখাটি দুম্রজালের উৎপত্তি এখনও মনে করেন । অনেকে মনে করেন চাকমা লেখাটি কম্বোডিয়া গোয়েংকা থেকে অক্ষর নেয়া বলে মন্তব্য করেন। তথ্য বহুল ও সমাদৃত করতে এ ক্ষুদ্র প্রয়াসে পাজেপ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী মন্তব্যে বলেন আগামী অর্থ বছরে ভাষাগত বর্ণ অক্ষর উন্নয়নে প্রকল্পের আওতায় অন্তভূক্ত করা হবে ।
বক্তারা পুরনো গুনীজন আদিবাসীদের লেখক ও কবি আগরতলার পান্না লাল মজুমদার, দুলাল চৌধুরী, মিজোরামের নিরন্জন চাকমা, দীঘিনালার আনন্দ চাকমা, গংগাসুখ চাকমা, খাগড়াছড়ি লেখক অমলেন্দু চাকমা, অশোক কুমার চাকমা, মুকন্ড চাকমাসহ অনেককে বইয়ের সহযোগী সহায়ক ভূমিকা হিসেবে স্মরন করা হয় ।
উল্লেখ্য ইউএনডিপি-সিএইচটিডিএফ পার্বত্য চট্টগ্রামে আদিবাসীদের সামাজিক উন্নয়নে কনফিডেন্স বিল্ডিং’র আওতায় আস্থা অর্জনে লক্ষে ২০০৩সাল থেকে প্রকল্পের কাজ করছে । বর্তমানে ৯টি থানার বিভিন্ন প্রকল্পের কার্যক্রম মধ্যে জনগোষ্ঠির ক্ষমতায়ন-৮টি উপজেলা, প্রত্যন্ত অঞলে মা ও শিশু উন্নয়নে স্বাস্থ্য খাতে ৪টি উপজেলা, প্রাক-প্রাথমিক ও মাতৃভাষা শিক্ষায় ৩টি উপজেলায় কাজ করছে । পাহাড়ে প্রথাগত, কৃষ্টি, সংস্কৃতি অবগতকরনে পুলিশ প্রশাসন সাথেও কাজ করছে । স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান উন্নয়নে ইউনিয়ন পরিষদ, পার্বত্য জেলা পরিষদ ও মং সার্কেল সক্ষমতা উন্নয়নে কার্যক্রমে কাজ করছে । দারিদ্রতা উন্নয়নে সমঝোতা স্মারকে মাধ্যমে এই সূচনায় ২০১৫সালে বৃহৎ আকারে কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে । ইতি মধ্যে ইউনেস্কোর ও ইএন যৌথ পরিচালনায় সম্মতিতে উপনীত হয়েছে ।

মাটিরাংগায় ২৪টি গুচ্ছগ্রামের স্থগিত রেশন দাবীতে দু’ঘন্টা সড়ক অবরোধ
খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি : খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলায় মাটিরাংগা উপজেলার পুর্নবাসিত বাংগালীর ২৪টি গুচ্ছগ্রামের স্থগিত রেশন চালুর দাবীতে উত্তাল হয়ে পড়েছে মাটিরাংগার রাজপথ । জুতা, ঝাটা হাতে আক্রমনাত্বক রাজপথে নেমে এসে রাস্তায় গনঅনশনের পর অভিন্ন দাবীতে দু’ঘন্টাব্যাপী তারা চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি-ঢাকা সড়ক অবরোধ করেছে । সরকারের পাওয়া নায্য অধিকার গুচ্ছগ্রামের রেশন অবিলম্বে প্রদানের দাবীতে ধারাবাহিক আন্দোলনের অংশ হিসেবে পূর্ব ঘোষনা অনুযায়ী মাটিরাংগায় অবস্থান কর্মসুচী ও গনঅনশনের ডাক দেয় রেশন আদায় সংগ্রাম পরিষদ । তাদের ডাকে সাড়া দিয়ে হাজার হাজার নারী-পুরুষ রোববার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত জুতা,ঝাড়–, লাঠি-সোঠা, থালাবাসন নিয়ে রাজপথে নেমে এসেছে । সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত মাটিরাংগা তবলছড়ি চত্বরে অবস্থান কর্মসূচী চলাকালে খাগড়াছড়ি সাথে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি-ঢাকা-ফেনীসহ সারা দেশের সড়ক যোগাযোগ বিছ্ছিন্ন হয়ে পড়ে । সেখানে দুইপাশে আটকা পড়ে কয়েক’শ যাত্রীবাহি যানবাহন । এসময় জনদুর্ভোগ চরমে পৌছে । পরে জনদুর্ভোগের চিন্তা করে প্রশাসন ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের অনুরোধে সড়ক অররোধ তুলে নেয় আন্দোলনকারীরা ।
গুচ্ছগ্রাম রেশন আদায় সংগ্রাম পরিষদ’র আহবায়ক শ্রমিক নেতা মোঃ হাফেজ পাটোয়ারী’র সভাপতিত্বে অবস্থান কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন মাটিরাংগা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মোঃ ইমরান হোসেন, মোঃ আইয়ুব আলী, মোঃ তোফায়েল হোসেন, মোঃ খোরশেদ আলম, মোঃ আব্দুল কাদের, মোঃ নুরুল ইসলাম নাহিদ প্রমূখ । এতে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন মাটিরাংগা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ শামছুল হক, তাইন্দং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ তাজুল ইসলাম প্রমূখ ।
জানা যায়, জেলায় মাটিরাংগা উপজেলার পুর্নবাসিত বাংগালীর ২৪টি গুচ্ছগ্রামের স্থগিত রেশন চালুর দাবীতে মাটিরাংগা রাজপথ বাজার তবলছড়ি মোড় মুহুুর্তে উত্তাল হয়ে উঠে। এ সময় শত শত নারী-পুরষ অবস্থান নেওয়ার সময় দু’ঘন্টা ব্যাপী চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি-ঢাকা সড়ক অবরোধের পরিনত হয় । উভয় দিক থেকে আসা যাত্রীবাহি বাস জনসমুদ্রে আটকা পড়ে প্রতিব›দ্ধকতায় সৃষ্ঠি মাধ্যমে দুর্ভোগে পরতে হয় । অনেক যাত্রীদের মাঝে এসময় আতংক বিরাজ করে । অবরোধকারীরা জুতা, ঝাটা হাতে রাজপথে আক্রমনাত্বক নেমে এসেছে রেশন না পাওয়া ভূক্তভোগীরা । রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় রেশন বঞিত কয়েক হাজার নারী-পুরুষ জুতা ও লাঠি হাতে রেশনের দাবীতে মাটিরাংগা উপজেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিল বের করে । হাজারো মানুষের অংশগ্রহনে বিক্ষোভ মিছিলটি বিভিন্ন সড়ক ঘুরে তবলছড়ি চত্বরে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি-ঢাকা আঞলিক সড়কে গণ-অবস্থান শুরু করে ।
বক্তারা আদালতে রিটকারীদের আওয়ামীলীগের নেতা দাবী করে বলেন, তাদের কারনে আজ এখানে আওয়ামীলীগের ইমেজ প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে সাধারন জনগন ভোগান্তির শিকার হচ্ছে । তারা অভিলম্বে রিটকারী দুর্নীতিবাজদের আওয়ামীলীগ থেকে বহিস্কারেরও দাবী জানান ।
তাদের দাবীর প্রেক্ষিতে রেশন প্রদানের ঘোষনা না আসা পর্যন্ত তারা ঘরে ফিরে যাবেন না । হাজার হাজার কার্ডধারীদের অবস্থান কর্মসূচীতে বক্তারা কোন সিদ্ধান্ত না আসলে ঘরে ফিরে না যাওয়ার ঘোষনা দিয়ে নিরীহ মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলায় মত্ত হাইকোর্টের রিটকারীদের বয়কট ও প্রতিরোধের আহবান জানিয়ে বলেন, তারা জনগনের ব›দ্ধু না, জনগনের শত্রু“ । তাদেরকে প্রতিহত করার ঘোষনা দেন বক্তারা ।
মাটিরাংগা আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ আইয়ূব আলী হাইকোর্টের রিটকারীদের আওয়ামীলীগ নেতা দাবী করে বলেন, তারা আওয়ামীলীগের ইমেজ নিয়ে খেলছে । জনগনের কাছে আওয়ামীলীগের ইমেজকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে ।
আন্দোলনের সাথে সংহতি প্রকাশ করে মাটিরাংগা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মোঃ ইমরান হোসেন রিটকারীদেরকে আওয়ামীলীগ দলীয় কার্যালয়ে অবান্চিত ঘোষনা করে তাদেরকে দল থেকে বহিস্কারের দাবী জানান ।
রেশন আদায় সংগ্রাম পরিষদ’র আহবায়ক মোঃ হাফেজ পাটোয়ারী তার বক্তব্যে অভিযোগ করে বলেন, মাটিরাংগা ২৪টি অ-উপজাতীয় গুচ্ছগ্রামের ৯হাজার ২’শ ৬২রেশন কার্ডধারী প্রত্যক পরিবারকে প্রতি মাসে সরকার ৮৫কেজি করে খাদ্যশস্য দিয়ে আসছে । নিয়ম অনুযায়ী প্রতি দুই বছর পর পর গুচ্ছগ্রামের প্রকল্প চেয়ারম্যান পরিবর্তন করা হয় । কিন্তু নতুন করে প্রকল্প চেয়ারম্যান হতে না পেরে সাবেক প্রকল্প চেয়ারম্যানদের ১২জন হাইকোর্টে রিট মামলা দায়ের করেন । যার কারনে দীর্ঘ ৭মাস ধরে রেশন না পেয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছে গুচ্ছগ্রামবাসীরা ।
এ প্রসংগে মাটিরাংগা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বকাউল বলেন, মাটিরাংগা উপজেলার ২৪টি গ্রচ্ছগ্রামে নতুন প্রকল্প চেয়ারম্যান নিয়োগের পর সাবেক প্রকল্প চেয়ারম্যানদের পক্ষ থেকে নতুন চেয়ারম্যান নিয়োগের রিরোধিতা করে হাইকোর্টে রিট করলে আদালত অক্টোবর মাস থেকে মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত রেশন প্রদান স্থগিত রাখার নির্দেশ দেন । ফলে রেশন বরাদ্ধ ও বিতরন ব›দ্ধ রয়েছে মাটিরাংগা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) নুর মোহাম্মদ জানান, ২৪টি গুচ্ছগ্রামে রেশন দাবীকৃত উৎশৃংখল কিছু উত্তেজিত লোকরা দু’ঘন্টা ব্যাপী রাস্তায় অবরোধ করে রাখে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনা হয় । তবে কোন আটক বা মামলা হয়নি ।
উল্লেখ্য জেলার মাটিরাংগায় পুর্নবাসিত বাংগালী ২৪টি গুচ্ছগ্রামের ৯হাজার ২’শ ৬৩জন কার্ডধারীর বিগত ৭মাসের বকেয়া রেশনের দাবিতে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি-ঢাকা-তবলছড়ি-তাইন্দং আঞলিক সড়কের উপর হাজারো ভূক্তভোগী মানুষের গণ-অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে । ফলে পাহাড়ী জনপথ জেলা খাগড়াছড়ির সাথে সারা দেশের যোগাযোগ দু’ঘন্টা ব্যাপী বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে ।

Share.

About Author

Leave A Reply