জমি সংক্রান্ত বিরোধে মঠবাড়িয়ায় এসএসসি পরীক্ষার্থীনীসহ ৩ নারী আহত

0

মঠবাড়িযা প্রতিনিধি ঃ জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় চলমান এস এস সি পরীক্ষার্থীনী তিন জন মহিলা আহত হয়েছেন। আহদের মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। গত ২১ ফেব্রুয়ারী বিকাল ৪ টার দিকে উপজেলার সেনের টিকিকাটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত পরীক্ষার্থীনী বাকি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারে কিনা? এনিয়ে তার পরিবার শংশয় প্রকাশ করছেন। কারন হিসেবে জানাগেছে ওই ছাত্রী সম্প্রতি এ্যপেন্ডিস’র অস্ত্রপাচার করেছেন। হামলা কারিরা তার পেটে এলোপাথারী লাথি মেরেছে বলে তার স্বজনরা জানান।
হাসপাতাল সুত্রে জানাগেছে, সেনের টিকিকাটা গ্রামের জলিল হাওলাদার গংদের সাথে একই এলাকার বারেক গংদের দীর্ঘ দিনের জমি নিয়ে দ্বন্দ চলে আসছিলো। এ নিয়ে সালিশ চলমান রয়েছে। ঘটনার দিন গত রবিবার জলিল হাওলাদার বাড়ীতে না থাকার সুযোগে বিরোধীয় জমির মাটি বারেক গংরা কেঁটে নেওয়ার চেষ্টা করে। এসময় জলিল মিয়ার স্ত্রী রেখা বেগম (৩৫) বাঁধা দিতে গেলে তাকে বারেক হাওলাদার ও তার দুই পুত্র কামাল,বাবুল ও আজিজ হাওলাদারের পুত্র বাদল মাটিতে ফেলে পাড়ায় ও চাঁপা আঘাত করে। রেখা বেগম’র ডাক চিৎকারে তার মেয়ে এস এস সি পরীক্ষার্থীনী সনিয়া (১৬) এবং জা নাসিমা এগিয়ে বাঁচাতে এলে তাদেরকে একই ভাবে মাটিতে ফেলে পাড়ায় ও চাঁপা আঘাত করে। পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করান। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জলিল হাওলাদার জানান। এব্যাপারে বারেক হাওলাদার গংদের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

pic mathbaria-22-2-16
মঠবাড়িয়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থীকে অপহরণের অভিযোগ ঃ তিন ঘন্টা পর উদ্ধার
মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) প্রতিনধি ঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় আজ সোমবার মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে উপজেলার ৬নং টিকিকাটা ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হোসাইন মোশারেফ সাকু জমাদ্দারকে মনোনয়নপত্র জমাদানে বিরত রাখতে প্রতিপক্ষ সমর্থক কর্তৃক অপহরণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসাইন মোশারেফ সাকু সাংবাদিকদের কাছে জানান, সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারী) সকাল ১০টায় মনোনয়নপত্র জমাদানের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে রওয়ানা হলে পূর্বে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা কতিপয় দুর্বৃত্ত ফিল্মিস্টাইলে পৌর শহরের শহীদ মিনারের সম্মুখ সড়ক দিয়ে তাকে জোড়পূর্বক ধরে মারধর করে তার মনোনয়নপত্র, ছবি, মটরসাইকেলের চাবি ছিনিয়ে নেয়। এরপর তারা একটি মাইক্রোবাসে তুলে ৮ কিলোমিটার দুড়ে পাশ্ববর্তী দাউদখালী গ্রামের একটি বাগানে নিয়ে আটকে রাখে। এসময় সাকুর কর্মী-সমর্থকরা অপহরণের বিষয়টি উধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানালে পুলিশের চাপের মুখে দুপুর ১টার দিকে অপহরণকারীরা তাকে কলেজ পাড়া এলাকায় ছেড়ে দিয়ে যায়। সেখান থেকে দুপুর সোয়া ১টার দিকে উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফুর রহমান তাকে উদ্ধার করে উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র দাখিলে সহযোগীতা করেন। তিনি আরো জানান, এঘটনায় তিনি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম ফরিদ উদ্দিন অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, মোবাইল ফোনে বিষয়টি যেনে তাৎক্ষনিক ওই প্রার্থীকে উদ্ধারে পুলিশকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, মৌখিক খবর পেয়ে ওই প্রার্থীকে উদ্ধারে তৎপরতা চালানো হয়। এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

Share.

About Author

Leave A Reply