মেহেরপুর-১ থেকে নির্বাচিত অধ্যাপক ফরহাদ হোসেনকে মন্ত্রি হিসেবে দেখতে চায় মুজিবনগরবাসী

0

মেহেরপুর প্রতিনিধি ঃ
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল ভোটে নির্বাচিত মেহেরপুর-১ (মুজিব নগর ও সদর) আসনের সংসদ সদস্য ফরহাদ হোসেনকে মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চায় মুজিব নগর খ্যাত মেহেরপুর বাসী। প্রায় ১ লক্ষ ৭০ হাজার ভোটের ব্যবধানে টানা ২য় বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। তাঁর আমলেই জেলা সদর ও মুজিব নগরে সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন কর্মকান্ড হয়েছে বলে দাবী জেলা আওয়ামী লীগের।
মেহেরপুর-১ (মুজিব নগর ও সদর) আসনের ২০১৪ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর থেকেই মেহেরপুর মুজিবনগরবাসীর দাবী উঠে তাঁকে মন্ত্রীসভায় স্থান দেয়ার। স্বাধীনতার ৪৭ বছর পেরিয়ে গেলেও বাংলাদেশের প্রথম রাজধানী মেহেরপুরে কোন মন্ত্রী স্থান পায় নি।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, স্বাধীনতার পর থেকে স্বাধীনতার সুতিকাগার খ্যাত মুজিবগর ও সদর এ আসন থেকে নির্বাচিত কাউকেই মন্ত্রী করা হয়নি। ১৯৭১ সলের ১৭ই এপ্রিল মহান স্বাধিনতার শপথ গ্রহনের পুন্যভুমি বঙ্গবন্ধুর নামে এ জেলায় বিভিন্ন সময় স্বাধীনতার ভিন্ন মতালম্বিরা এ জেলাকে রেখেছিল উন্নয়নের বাইরে। আওয়ামীলগের শাসনামলে এ জেলায় ব্যপক উন্নয়ন হয়েছে। বিগত ৫ বছরে এ আসনকে সন্ত্রাস, দূর্নিতি, মাদক থেকে দূরে রেখেছিলেন জনপ্রিয় এ সংসদ, তিনি তার বাবার মত পরিচ্ছন্ন রাজনৈতিক সুনাম বজায় রেখে রাজনৈতিক ধারা অব্যাহত রেখেছেন। তার বাবা ছিলেন বঙ্গবন্ধুর অস্থাভাজন ও বিশস্ত মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, তিনিও এ আসনের সাংসদ ছিলেন।
তবে স্বাধীনতার ক্রান্তিকালে দুঃসময়ের নেতা ও ৭৫’ পরবর্তী সংকটকালে এ জেলার আওয়ামীয়ালীগকে আগলে রেখেছিল এ রাজনৈতিক পরিবার তাঁর অবদান মূল্যায়ন করে এবার জেলা সদর থেকে তাঁকে মন্ত্রী বানানোর জন্য আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার কাছে জোর দাবি জানিয়েছে মুজিবনগর খ্যাত মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিসহ জেলা সদরের সর্বস্তরের জনগন।
এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ইব্রাহিম শাহীন বলেন, নির্বাচনী প্রচারণার জন্য যেখানেই গিয়েছি সেখানেই মানুষ প্রত্যাশা জানিয়েছে অধ্যাপক ফরহাদ হোসেন বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে মন্ত্রীসভায় স্থান পাবেন। দলে তাঁর অনেক অবদান রয়েছেন। তিনি দলের সকলকে ঐক্যবদ্ধ করেছেন। তাই জেলা আওয়ামীলীগ আগের চেয়ে অনেক বেশী শক্তিশালী।
ধুমকেতু হায়দার, খন্দবার মুইজ উদ্দিন, আলামিন হোসেন সহ মেহেরপুর জেলার সচেতন নাগরিকেরা জানান, অধ্যাপক ফরহাদ হোসেনের আমলে ভৈরব নদ খনন, স্কুল, কলেজ, হাসপাতাল, রাস্তা সহ প্রায় চার হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ হয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি তাঁকে মন্ত্রী বানালে মুজিবনগর মেহেরপুরের এ উন্নয়নের ধারা আরও বেগবান হবে।

Share.

About Author

Leave A Reply