রংপুর মেডিকেলে ভর্তি তোফা

0

নিজস্ব প্রতিনিধি :
গাইবান্ধা : গত শনিবার রাতে রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত। তোফা শিশু বিভাগের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছে।
দেশব্যাপী আলোচিত কোমরে জোড়া লাগানো অবস্থায় জন্ম নেওয়া ২৭ মাস বয়সী তোফাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
তোফার মা শাহিদা বেগম বলেন, শনিবার রাতে গাইবান্ধা জেলা হাসপাতালের জুনিয়র কনসালটেন্ট (শিশু) আবুল আজাদ মন্ডল এসে পরীক্ষা-নীরিক্ষা শেষে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হতে পরামর্শ দেন।
পরে তোফাকে রংপুর মেডিকেলে নিয়ে যাই। এখানে এক্সরে ও রক্ত পরীক্ষা করা হয়েছে। সে রিপোর্ট হাতে পেয়েছি। ডাক্তার রিপোর্টগুলো দেখার পর ঢাকা মেডিকেলে যেতে হবে কিনা সে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
ডা. আবুল আজাদ মন্ডল রবিবার বিকেলে বলেন, উন্নত চিকিৎসার জন্য তোফাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।
তবে একসাথে ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ায় কিছুটা ঝুঁকিপূর্ণ। তোফার বিষয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিভাগের প্রধান ডা. সাহনূর ইসলাম ও রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগের প্রধান ডা. বিকাশ মজুমদার স্যারের সাথে পরামর্শ করেছি। তোফা এখন ডা. বিকাশ মজুমদার স্যারের তত্ত্বাবধানে আছে, আশা করছি ভালো হবে।
গাইবান্ধা জেলা হাসপাতাল ও পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, ডায়রিয়া, শ্বাসকষ্ট ও কাশি শুরু হলে তোফাকে গত বুধবার রাতে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়। এরপর গত শনিবার সকালে ভর্তি করা হয় গাইবান্ধা জেলা হাসপাতালে। এদিন রাতেই তোফাকে পাঠানো হয় রংপুর মেডিকেলে।
উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার রামজীবন ইউনিয়নের কাশদহ গ্রামের নানার বাড়ীতে জন্ম নেওয়া তোফা ও তহুরাকে ২০১৭ সালের ১ আগষ্ট ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে আলাদা করা হয়।
দেশে প্রথম ‘পাইগোপেগাস’ শিশুকে আলাদা করার ঘটনায় ‘তোফা-তহুরা’ই প্রথম। ঢাকা মেডিকেলে কয়েক দফার দীর্ঘ চিকিৎসার পর তোফা-তহুরা সম্পুর্ন সুস্থ্য হয়ে বাড়ী ফেরে গত বছরের ৪ ডিসেম্বর।

Share.

About Author

Leave A Reply