মঠবাড়িয়ায় ছোট ভাইয়ের হামলায় বড় ভাই আহত

0

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি : মঠবাড়িয়ায় জমি সংক্রান্ত জেরে ছোট ভাই ছালাম হাওলাদার ও তার বাহিনীর হামলায় আহম্মদ হাওলাদার (৮২) নামে এক ব্যাক্তি গুরুতর আহত হয়েছেন। বুধবার দুপুর ২ টার দিকে উপজেলার পশুরিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এসময় ব্যপক ভাবে বাড়ি ভাংচূড় ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় ইউপি সদস্যার স্বামী আলতাফ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। আহত দৃষ্টি প্রতিবন্ধি বৃদ্ধ আহম্মদ হাওলাদারকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। আহম্মদ ও ছালাম হাওলাদার ওই গ্রামের মৃত. মোসলেম আলী হাওলাদারের পুত্র।
স্থানীয়রা জানান, পৈত্রিক ও রেকডিও সূত্রে পাওয়া জমিতে আহম্মদ হাওলাদার বসত ঘর তুলে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছিলেন। ওই জমি তার ছোট ভাই ছালাম হাওলাদার নিজের দাবি করে বেশ কয়েকবার ঝামেলা করে আসছে এমনকি মিথ্যা মামলায় পর্যন্ত গড়িয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় দুপুরে আহম্মদ হাওলাদার একা বাড়ি থাকার সুযোগে ছালাম হাওলাদার, তার পুত্র হেমায়েত, কন্যা এমিলি, স্ত্রী শাহিনুর বেগমসহ অজ্ঞাত ৪/৫ ব্যক্তি বসতঘর ভাংচূড় ও লুটপাট চালায়। এসময় তিনি বাধা দিতে গেলে তাকে পিটিয়ে জখম করা হয়। স্থানীয়রা ছালাম হাওলাদারকে মামলাবাজ আখ্যা দিয়ে আরো জানান, আহম্মদ হাওলাদারের ফাঁকা স্থানে একক বাড়ি হওয়ার কারণে আশপাশের লোকজন দ্রুত ছুটে আসতে পারেনি। সন্ত্রাসীরা বাড়িতে ব্যপক তান্ডব চালিয়ে বিভিন্ন মালামাল সহ ঘরের টিন খুলে নিয়েছে। রাতে তারা গ্রামবাসি মিছিল আকারে থানায় এসে আইনী সহযোগিতা চাইবেন বলে জানান।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শওকত আনোয়ার বলেন, লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

মঠবাড়িয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় আহত-৩
মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি : কবরস্থানে ময়লা ফেলার প্রতিবাদ করতে গিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় কবিরাজ ফারুক হাওলাদার (৫৪), জাফর হাওলাদার (৩২) ও মাহমুদা বেগম (২৫) নামে তিন জন আহত হয়েছেন। গত সোমবার রাত ৮ টা ও রাত ১ টার দিকে উপজেলার উত্তর কুমিরমার গ্রামে দুদফা এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহত ফারুক হাওলাদার ও জাফর হাওলাদার ওই গ্রামের মৃত. আঃ গফ্ফার হাওলাদারের পুত্র। মাহমুদা বেগম জাফর হাওলাদারের স্ত্রী। সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশ হাসপাতালে গিয়ে অসুস্থদের খোঁজ খরব নিয়ে আইনী সহযোগিতার আশ্বাস দেন।
আহত ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি কবিরাজ ফারুক হাওলাদারের পিতা গফ্ফার হাওলাদারের কবরের ওপর প্রতিপক্ষ আপন চাচাতো ভাই বাদল গংরা ময়লার স্তুপ (পুরাতণ জুতা) ফেলে রাখে। যা ফারুকের মা পরিস্কার করতে গিয়ে চেঁচামেছি করেন। এঘটনা সোমবার সন্ধায় পুঃণরায় আলোচনায় আসে। এসময় কথার কাঁটাকাটির এক পর্যায় বাদল হাওলাদারের নেতৃত্বে রাত ৮ টার দিকে হামলার ঘটনা ঘটে। পরে রাত ১ টার দিকে বাদল ও তার ভাই বাহাদুর, পুত্র রাজু, ভাতিজা মেহেদী হাসান, মেহেদীর খালাতো ভাই রুবেলসহ অজ্ঞাত ৩/৪ জন ব্যক্তি পুঃণরায় তাদের ওপর পরিকল্পিতভাবে হামলা চালায় ও বসত ঘরে ভাংচূড় করে ত্রিশ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় হয়েছে বলে অভিযোগ করেন।
এব্যপারে বাহাদুর হাওলাদার টাকা ছিনিয়ে নেয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, আমার পিতা ও স্ত্রীকে তারা মারধর করেছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম মারামারির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাটি আমি মিমাংসার চেষ্টা করছি।

Share.

About Author

Leave A Reply