ভান্ডারিয়ায় আদালতের আদেশ অমান্য করে চলছে পাকা ভবন নির্মান, প্রতিবাদ করায় বাদীকে কুপিয়ে জখম

0

নিজস্ব প্রতিবেদক :
ভান্ডারিয়া (পিরোজপুর) : ভান্ডারিয়া উপজেলার পূর্ব পশারিবুনিয়া গ্রামে আদালতের আদেশ অমান্য করে চলছে পাকা ভবন নির্মান। উক্ত জমিতে কাজ করতে নিষেধ করায় গত শুক্রবার সকালে মামলার বাদী হাদিউজ্জামানকে কুপিয়ে জখম করে বিবাদীরা। স্থানীয়রা হাদিউজ্জামানকে উদ্ধার করে ভান্ডারিয়া হাসপাতালে ভর্তি করেন।
মামলার ঘটনা বিবরনে জানা যায়, উপজেলার পূর্ব পশারিবুনিয়া গ্রামের মৃত আঃ ছালাম তালকুদারের ৪ পুত্র ও ৩ মেয়ে যথাক্রমে আব্দুল হামিদ, হাদিউজ্জামান, হানিফা, আরিফ, ছালমা, আসমা ও শারমীন আক্তার ১১.০৫ শতংশ সম্পত্তি পৈত্রিক ওয়ারিশ সুত্রে মালিক। তাদের ওই ভোগ দখলি জমিতে একই গ্রামের মৃত আজিজ তালুকদারের ছেলে মুক্তিযোদ্ধা আ: ছামাদ, সোহাগ এবং মাইনুল হোসেন ও তার বাবা আ:মতিন হাওলাদার ভাক্ত স্বত্বের দাবীতে গত ১৫ ফেব্রুয়ারী দলবল নিয়ে উক্ত জমি দখলের জন্য জমির গাছপালা ও মাটি কেটে পাকা ঘর নির্মানের উদ্বৃত হয় এবং হত্যার হুমকি দিলে গত ২০ ফেব্রুয়ারী মো: হাদিউজ্জামান বাদী হয়ে ন্যায় বিচার চেয়ে পিরোজপুর জেলা অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৪৪/১৪৫ মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ৮৬/১৯। গত ১৪ মার্চ আদালত উক্ত নালিশী ভুতিতে মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত স্থিতিবস্থা বজায় রাখার নিদের্শ দেয় এবং ভান্ডারিয়া অফিসার ইনচার্জকে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আদালত আদেশ প্রদান করে। কিন্তু উক্ত বিবাদী আ: ছামাদ আদালতের আদেশ অমান্য করে ওই জমিতে গত ৫ দিন ধরে দিনরাত দলবল নিয়ে পাকা ভবন নির্মান করছেন। ওই জমিতে ভান্ডারিয়া থানা পুলিশ কাজকর্ম করতে নিষেধ করলেও তা শুনতে নারাজ বিবাদী আ: ছামাদ। তিনি বলেন, আমি উক্ত ১৪৪/১৪৫ মামলাটি জেলা জজকোর্টে স্থানান্তর করেছি এবং বিচারে যা হয় তখন তা মেনে নিবো। এ ব্যপারে ভান্ডারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) তরিকুল ইসলাম বলেন, ওই জমিতে থানা পুলিশ কাজকর্ম করতে নিষেধ করলে তাদের সাথে অসাদাচরন করে উক্ত বিবাদীরা এবং তবে বাদীর ওপর হামলার কথা শুনেছি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
bhandaria news pic---2

Share.

About Author

Leave A Reply