মাধবদীতে “বান্ধব-৯৩” এর পূণর্মিলনী ও এন সি সি আই পরিচালকদের সংবর্ধনা

0

মোঃ আল আমিন :
মাধবদী (নরসিংদী) : মাধবদী এস পি ইনস্টিটিউশন স্কুলের ১৯৯৩ সালের এস এস সি ব্যাচের শিক্ষার্থীদের সংগঠন “বান্ধব-৯৩” এর ২০১৯ইং পুণর্মিলনী ও এন সি সি আই পরিচালকদের সংবর্ধনা প্রধান অনুষ্ঠান গত ৬ জুলাই শনিবার মাধবদীর নওপাড়ার হেরিটেজ রিসোর্টে অনুষ্ঠিত হয়েছে।
“বান্ধব-৯৩” আয়োজনে জমকালো এ অনুষ্ঠানে নরসিংদী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রেসিডেন্ট ও বান্ধব-৯৩ এর সভাপতি আলী হোসেন শিশিরের সভাপতিত্বে প্রায় দেড় শতাধিক বন্ধুদের নিয়ে হেরিটেজ রিসোর্টে পুণর্মিলনী ও সংবর্ধনা অনূষ্ঠানে সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে একে একে সব বন্ধুরা আসতে থাকলে এক সময় যেন এ এক বন্ধুদের মিলন মেলায় পরিনত হয়ে উঠে। দীর্ঘ ২৬ বছর পর স্কুল জীবনের সহ পাঠীদের সাথে দেখা হওয়ায় অনেকেই আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন। এ সময় প্রাণবন্ত হয়ে উঠে পুরো অনুষ্ঠানমালা। একে অপরের সাথে কুশল বিনিময়ে ব্যাস্ত হয়ে পড়েন। পরে সকল বন্ধুদের এক কালারের টি সার্ট পরিয়ে দেয়া হয়। সকল বন্ধুরা যখন টিসার্ট পরে রিসোর্টের মাঠে বেরিয়ে পরে দেখে মনে হয়েছে এ যেন একঝাক তরুন মনের খুশিতে আকাশে উড়ে বেড়াচ্ছে। এ সময় স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বন্ধুরা বলেন, বন্ধুত্বের শিকড় অনেক গভীর এটিকে ধারণ করে আমরা দীর্ঘ ২৬ বছর পার হয়ে যাওয়ার পরও একে অপরেকে খুজি। পরে বেলা বাড়ার সাথে সাথে সবাই আনন্দ করার জন্য নেমে আসেন রিসোর্টের ওয়েভ সুইমিংপুলে প্রায় দু’ঘন্টা সব বুন্ধরা মিলে সাগরের ঢেউয়ের তালে এবং শিল্পিদের গানের সাথে সাথে আনন্দ করেন। দুপুর হয়ে আসলে সবাই চলে যান রেস্টরেন্টে বুফে খাবার তাও আবার চাইনিজ খাবার যার যে ভাবে মনে চেয়েছে নিজ হাতে নিয়ে খেতে বসে যায়। খাবার শেষ হালকা বিশ্রামের পর সবাই চলে আসনে রিসোর্টের কনসার্ট রুমে জাকঝমক সাজে সজ্জিত হল রুমে একে এক উপস্থিত হতে থাকে সব বন্ধুদের সাথে উপস্থিত হতে থাকে নরসিংদী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রেসিডেন্ট মোঃ আলী হোসেন শিশির, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মাহমুদুল হাসান শামিম নেওয়াজ, ভাইস প্রেসিডেন্ট জাকির হোসেন, পরিচারক রফিকুল ইসলাম, আল মুজাহিদ হোসেন তুষার, মমিন মিয়া, নাজিম উদ্দিন ভূইয়া রিপন, আব্দুল কাইউম মোল্লা, আল আমিন রহমান, মোতালিব হোসেন, নাজমুল হক ভূইয়া, নূরে আলম সিদ্দিক, শহিদুল ইসলাম পলাশ, সাইফুল ইসলাম জাহিদ, আনিসুর রহমান, ও হাসিব আহমেদ। অনুষ্ঠানমালার উদ্ভোধন শেষে একে একে নরসিংদী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর সকলকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন “বান্ধব-৯৩” এর বন্ধুরা এবং পরিচালকদের ক্রেস্ট প্রধান করে সংবর্ধনা দেয়া হয়। এ সময় হেরিটেজ রিসোর্টের মালিক মেনহাজুর রহমান রাজু ভূইয়াকেও ক্রেস্ট দিয়ে সংবর্ধনা দেয়া হয়। পরে অতিথীদের বক্তিতা শুরু হয় এ সময় বক্তার বলেন মানুষ পারেনা এমন কোন কাজ নেই, কেবল সুচিন্তা ও অটুট মনোবল যার আছে সেই অসাধ্য সাধন করতে পারে আর ক্ষেত্রে শিক্ষাই সর্বোৎকৃষ্ট পন্থা। শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। শিক্ষার চেয়ে উৎকৃষ্ট বিনিয়োগ আর কিছু হতে পারে না। আলোচনা শেষে হাউজি বাম্পার খেলার আয়োজন করা হয়। এ সময় ঢাকা থেকে আগত চ্যানেল আইয়ের শিল্পী সহ অন্যান্য শিল্পীরা। শিল্পী বৃষ্টি, প্রান্তি, মেরি ও লিটনের নাচে গানে শুরু হয় শিল্পীদের গানের পালা। গানে গানে যখন পুরো অনুষ্ঠান মাতিয়ে তোলা হয় তখন সব বন্ধুরা যার যার আসন ছেড়ে স্টেজের সামনে নাছে গানে মেতে উঠেন। সন্ধা গড়িয়ে যখন রাত ১০ বাজতে চললো তখন আবারো সুমিংপুলে ডাক আসে কে কে রাতে গোসল করবে সবাই গোসল না করলেও বন্ধুদের মাঝে অনেকেই সুমিংপুলে নেমে পরেন পাশেই ব্যবস্থা রাখা হয় গান বাজনা আর বারবী কিউ পার্টি এখানে পোড়া মুরগি ও শিক কাবাবের সাথে রাতে ডিনারের ব্যবস্থা থাকছে যার যার মতো করে নিয়ে খেতে থাকলো গানে গানে মেতে উঠে। রাত গভীর হতে থাকলে এক এক করে বন্ধুরা বিদায় নিতে থাকে। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন বান্ধব ৯৩ এর সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান জুয়েল ও কল্প। বাস্তবায়ন কমিটিতে ছিলেন বন্ধু হাবিবুল্লাহ, আতাউর রহমান, অপু ও স্বপন।

Share.

About Author

Leave A Reply