রামগঞ্জে নবজাতকের মৃত্যু নিয়ে ধুম্রজাল

0

রামগঞ্জ প্রতিনিধি:
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জস্থ আল ফারুক হাসপাতালে একটি নবজাতকের মৃত্যু নিয়ে নানানমুখি আলোচনা –সমালোচনা চলছে। এক পক্ষের দাবি-ডাক্তারের ভুল চিকিৎসার কারনেই ওই নবজাতকের মৃত্যু হয়। এতে পুলিশ ওই হাসপাতালটির এম ডি কে আটক করেছে। অন্যদিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষসহ অপর একটি পক্ষের মতে এ ধরনের কোন ঘটনায়ই ঘটেনি। হাসপাতাল সূত্র জানায়, গত রোববার সকালে উপজেলার ভাটরা গ্রামের আব্দুল্লাহ কামালের স্ত্রী শারমিন আক্তারের প্রসব বেদনা শুরু হয়। পরে ওই দিন স্ন্ধ্যা ৭টায় অভিভাবকগন শারমিনকে আল ফারুক হাসপাতালে ভর্তি করলে ডাঃ রহিমা ফেরদাউসের তত্বাবধানে শারমিনের নরমালই ডেলিভারি হয়। এর কিছুক্ষন পর একই হাসপালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডাঃ আব্দুল্লাহ আল আমিন ওই নবজাতককে মৃত ঘোষনা করেন। এতে সাময়িক ভাবে শারমিনের অভিভাবকগন ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। পরে তারা বিষয়টি বুঝতে পেরে সৃষ্ট ঘটনায় তাদের কোন অভিযোগ নেয় বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বরাবর লিখিত দিয়ে শারমিনকে পরদিন সোমবার রিলিজ করে নিয়ে যায়। এরপরও বিষয়টি নিয়ে ওই একটি পক্ষ সৃষ্ট ঘটনায় হাসপাতালের এমডি ফারুক হোসেনকে পুলিশ আটক করেছে বলে রটনা ছড়ায়। মুলত বিষয়টি ডাহা মিথ্যা।
এ ব্যাপারে রামগঞ্জ থানা পুলিশ অফিসার ইনচার্জ মোঃ আনোয়ার হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ধরনের বিষয় গুলো সংশ্লিষ্ট দপ্তর দেখে থাকেন। তাছাড়া বিষয়টি নিয়ে কেউই থানায় লিখিত অভিযোগ করেননি। আর অভিযোগ না হলে পুলিশ অযথা হয়ারানি করবেই বা কেন?
অভিজ্ঞ মহলের মতে, রামগঞ্জে প্রাঃ হাসপাতালের সংথ্যা মাত্রাতিরিক্ত । সে সুবাদে হাসপাতালগুলো একে অপরের প্রতিপক্ষ হয়ে দাড়িয়েছে। আর এ মনোভাবের কারনেই এমনটি ঘটেছে।

Share.

About Author

Leave A Reply