মুজিবনগর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি কেন্দ্র প্রকল্পের স্থাপত্য নকশা অনুমোদন সভা

0

মেহের আমজাদ:
মেহেরপুর : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক এম.পি বলেছেন, ‘হাইকোর্টের একটি নিষেধাজ্ঞা থাকায় রাজাকার ও যুদ্ধাপরাধীদের তালিকা প্রকাশ করতে পারিনি। আশা করছি ডিসেম্বরের মধ্যে এই তালিকা প্রকাশ করতে পারব। প্রতিটা ইউনিয়ন পরিষদসহ বিভিন্ন স্থানে রাজাকার ও যুদ্ধাপরাধীদের তালিকা প্রকাশ করা হবে।’
শুক্রবার দুপুরে মেহেরপুরের ঐতিহাসিক মুজিবনগর পর্যটন মোটেলে আয়োজিত মুজিবনগর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি কেন্দ্র প্রকল্পের স্থাপত্য নকশা অনুমোদন সভায় সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী মোজাম্মেল হক এম.পি বলেন, ‘মুজিবনগর হচ্ছে স্বাধীনতার শপথ ভূমি, সূর্যোদয় ভূমি। মুজিবনগরে বাংলাদেশের প্রথম সরকার শপথ না নিলে দেশ স্বাধীন নিয়ে বড় ধরনের সমস্যা হতো। মুক্তিযুদ্ধের সেই স্মৃতি দেশি বিদেশি পর্যটকদের কাছে তুলে ধরতে এখানে অন্তর্জাতিক মানের মুক্তিযুদ্ধ তীর্থস্থান হিসেবে গড়ে তুলব।’
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও মেহেরপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আয়োজিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এম.পি। সভাপতিত্ব করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব এস. এম আরিফ-উর-রহমান।
মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি কেন্দ্র প্রকল্পের স্থাপত্য নকশা অনুমোদন সভায় উপস্থিত ছিলেন মেহেরপুর জেলা প্রশাসক আতাউল গনি,পুলিশ সুপার এস.এম.মুরাদ আলী মেহেরপুর পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটন, মুজিবনগর উপজেলা চেয়ারম্যান জিয়া উদ্দীন বিশ্বাস,সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদুল আলম, মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উসমান গনিসহ জেলা প্রশাসনের সহকারি কমিশনার, ইউপি চেয়ারম্যানগন ও আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দরা অংশ নেন। সভায় মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যেমে নতুন প্রকল্পের বিভিন্ন স্থাপত্য নকশা তুলে ধরা হয়। এর আগে মুজিবনগর সৃতিসৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী মোজাম্মেল হক এ.পি।

Share.

About Author

Leave A Reply