মাধবদীর মেঘনা নদীতে ডুবে যাওয়া কলেজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার

0

মোঃ আল আমিন:
মাধবদী (নরসিংদী) সংবাদদাতা: মাধবদীর মেঘনা নদীতে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া কলেজ ছাত্র সিকদার মাহমুদ মিয়াদ (২২) এর মরদেহ এক দিন পর গত ৩ আগস্ট শনিবার গভির রাতে উদ্ধার করে স্থানীয় জেলেরা। গত ২ আগস্ট শুক্রবার মিহাদসহ তারা সাত বন্ধু মিলে একটি ইঞ্জিনচালিত নৌকায় চড়ে মেঘনা নদীতে বেড়াতে যায়। নৌকায় তারা বিকালের খাবার খেয়ে সন্ধ্যায় গোসল করতে নদীতে নামে এ সময় গোসল করতে গিয়ে ডুবে যায় মিয়াদ। পুলিশ ফায়ার সার্ভিস ও ডুবুরিদলসহ স্থানীয় লোকজন তাকে অনেক খোঁজাখুজির পর উদ্ধার করতে পারেনি পরে গভীর রাতে জেলেরা মাছ ধরার সময় মিয়াদের মরদেহের সন্ধান পান। মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু তাহের দেওয়ান ঘটনার সত্যত্বা স্বিকার করে জানিয়েছেন, নিহত মিয়াদ শিবপুর উপজেলার আবদুল মান্নান ভূঁইয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের অনার্স ৩য় বর্ষের ছাত্র। শুক্রবার সন্ধ্যায় মাধবদীর মহিষাশুরা ইউনিয়নের বথুয়াদী গ্রাম সংলগ্ন মেঘনা নদীতে গোসল করতে নেমে সে নিখোঁজ হয়। মিয়াদ সড়ক ও জনপথ বিভাগ মাধবদী শাখার কার্য সহকারী সিকদার মাহমুদ মিলন এর ছেলে। ঘটনার পর থেকে পুলিশ ফায়ার সার্ভিস ও ডুবুরিদলসহ স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধারের চেষ্টা চালায়। তার সাথের বন্ধু মোতালিব রহমান শিশির জানায়, শুক্রবার বিকেলের দিকে মিয়াদসহ মাধবদী কলেজে শিক্ষার্থী শাকিল, ফাহিম ও নরসিংদী সরকারী কলেজের শিক্ষার্থী সজল, রাব্বি ও আরিফ মিলে তারা একটি ইঞ্জিনচালিত নৌকায় চড়ে মেঘনা নদীতে ঘুরতে যায়। নৌকায় তারা বিকেলের খাবার খেয়ে সন্ধ্যায় গোসল করতে নামে। এদের মধ্যে মিয়াদ পানিতে নামার সময় নৌকার কাঠে পায়ে আঘাত পায়। পরে সবাই গোসলে ব্যস্ত থাকার এক পর্যায়ে মিয়াদ নৌকা থেকে লাফ দিয়ে গোসল করতে নদীতে নামে। পানিতে নামার পর তাকে আর পানির উপর ভাসতে না দেখে আমরা সবাই খোজা খুজি শুরু করি। পরে অনেক খোঁজাখুজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি। পরে এ বিষয়টি তার স্বজনদের মুঠোফোনে জানানো হলে তাদের খবরের ভিত্তিতে রাতেই মাধবদী থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। পরে রাত সাড়ে ১২ টায় মাধবদী থানা পুলিশকে খবর দিলে তারা মিয়াদের মরদেহ মেঘনা নদী থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন পরে ৪ আগস্ট রোব বার সকালে মরদেহটি নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়ে ময়না তদন্ত শেষে তার পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হয়। রোবারার দুপুর মাধবদীর পুরাতন বাসস্ট্যন্ড সিএন্ডবি মসজিদে জানাজা শেষে তার নিজ বাড়ি বরিশালে নিয়ে দাফন সম্পন্ন করা হয়।

Share.

About Author

Leave A Reply