আক্কেলপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

0

আবু রায়হান :
জয়পুরহাট : জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার রুকিন্দীপুর ইউনিয়নের জামালগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী কে টিসি দেয়ার ঘটনা কে কেন্দ্র করে পুলিশের উপস্থিতিতে প্রতিবাদ মিছিল চলাকালে ঘটনাটি ঘটেছে।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রানা কুমার সরকার ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, উক্ত বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী ময়না আক্তার জামালগঞ্জ এলাকার রকি নামের এক ছেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে গত ৪ সেপ্টেম্বর দুপর ১ টায় টিফিনের ছলে স্কুল থেকে বাহিরে যায়। পরে দীর্ঘ সময়ে স্কুলে না ফিরলে সকল শিক্ষক মন্ডলীর মধ্যে একটি গুন্জন সৃষ্টি হয়।
এক পর্যায়ে শিক্ষক মন্ডলীদের সিদ্ধান্ত ক্রমে ছাত্রীর পরিবার কে স্কুলে ডেকে তাদের মেয়ে স্কুল ছাত্রী ময়না আক্তার কে টিসি দিয়ে স্কুল থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিলে ওই দিনই সন্ধায় ময়না আক্তারের প্রেমিক রকি বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী কে টিসি দিতে বারণ করায় তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে স্কুলের অফিস সহকারী কে মারপিট করে গুরুতর আহত করলে স্থানীরা তাকে উদ্ধার করে দ্রুত আক্কেলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির পরে প্রাথমিক চিকিৎসার শেষে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।
বিষয়টি প্রধান শিক্ষক রানা কুমার সরকার বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি গোলাম মাহফুজ চৌধুরী অবসর ও অন্যান্য সদস্যদের অবহিত করলে ঘটনাটি নিরসনে ৫ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টায় বিদ্যালয় মাঠে পরিচালনা কমিটির সকল সদস্য, শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে অফিস সহকারীকে মারধরের নেক্কার জনক ঘটনার প্রতিবাদে এক মিছিল বের করলে রকি তার গুন্ডা বাহিনী কে লেলিয়ে দিয়ে মিছিলে অতর্কিত হামলা চালায়।
হামলায় ইটপাটকেল ও লাঠির আঘাতে এক পুলিশ সদস্য ও বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সদস্য সহ ১০ থেকে ১২ জন ছাত্রছাত্রী আহত হন।
এ বিষয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি, আক্কেলপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র গোলাম মাহফুজ চৌধুরী অবসর জানান, রুকিন্দীপুর ইউপি চেয়ারম্যান আহসান কবির এ্যাপ্লব উন্নয়নের ধারা কে ব্যাহত করতে এ মিছিলে তার গুন্ডা বাহিনী কে লেলিয়ে দিয়ে মিছিলে বাধাঁ সৃষ্টি করে।
তিনি আরও জানান জামালগঞ্জের এক স্বার্থান্বেষী মহল বিদ্যালয়ের উন্নয়নের ক্ষেত্রে বারবার বাধাঁর সৃষ্টি করেছে। আমি বিশ্বাস করি যতই বাধাঁ আসুক জামালগঞ্জের মাটিতে কোন প্রকার অন্যায় অত্যাচার অবিচার হতে দিবো না প্রয়োজনে জনগণকে সাথে সকল অন্যায়ের বিষদাঁত ভেঙ্গে দেয়া হবে।
অপরদিকে রুকিন্দীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আহসান করিব এ্যাপ্লব জানান, যারা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত এবং যারা এ মিছিলে হামলা করেছে তারা আমার নিয়ন্ত্রিত কোন ব্যক্তি বা লোক নয়।
যারা এ মিছিলে বাধাঁ সৃষ্টি করেছে তারা এ বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবক বলেও তিনি জানান।
আক্কেলপুর থানার (ওসি তদন্ত) আবু রায়হান জানান আমি ঘটনার সংবাদ পেয়ে সঙ্গীয় ফোর্স সহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।
এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আক্কেলপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছিল।

Share.

About Author

Leave A Reply