রাস্তায় সতর্ক হয়ে চলার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর

0

নিজস্ব প্রতিবেদক :
ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাস্তায় চলাচলে সবাইকে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। বলেছেন, একটা দুর্ঘটনা ঘটলে শুধুমাত্র চালককে দায়ী করলে চলবে না। বরং কি কারণে দুর্ঘটনা ঘটল, চালক বা পথচারী কার ভুল সেটাও খতিয়ে দেখা দরকার।
আজ সকালে গণভবনে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ময়মনসিংহ- গফরগাঁও টোক সড়কে বানার নদীর উপর সেতু, ঢাকা- চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের ইন্দ্রপুল থেকে চক্রশালা পর্যন্ত বাঁক সরলীকরণ, সাতক্ষীরা শহর বাইপাস সড়ক, ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ভুলতায় ৪ লেন ফ্লাইওভার, মুন্সিগঞ্জে ১৩টি ঝুঁকিময় সেতু স্থায়ী কংক্রিট দ্বারা প্রতিস্থাপন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন।
এরপর একই স্থানে ঢাকা-কুড়িগ্রাম-ঢাকা রুটের আন্ত:নগর ট্রেন চালু এবং রংপুর এক্সপ্রেস ও লালমনিরহাট এক্সপ্রেসের র‌্যাক প্রতিস্থাপন উদ্বোধন করেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা এমনভাবে যোগাযোগ ব্যবস্থা তৈরি করছি যেখানে মানুষ খুব অল্প সময়ে এক অঞ্চল থেকে আরেক অঞ্চলে যোগাযোগ করতে পারবে। জেলা থেকে একেবারে ইউনিয়ন ওয়ার্ড পর্যন্ত, আবার রাজধানী থেকে বিভিন্ন জেলা উপজেলা ইউনিয়ন পর্যন্ত। এভাবে একটা সড়ক নেটওয়ার্ক গড়ে তোলার ব্যাপক কর্মসূচি আমরা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি। যার শুভ ফল আপনারা পাচ্ছেন।
এ সময় প্রধানমন্ত্রী তার সরকারের নেয়া পদক্ষেপগুলো তুলে ধরেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, সড়ক ব্যবহারের ক্ষেত্রে সকলকে একটু সচেতন হতে হবে। কোন সড়কে কত বেশি বড় ট্রাক বা ওজনের ট্রাক বা যানবাহন চলতে পারে, সেই বিষয়টা খেয়াল রাখা দরকার। অনেক সময়, অনেকে এটা মানতে চান না।
তিনি আরও বলেন, নিরাপদ সড়কের কথা আমরা বলছি।
এরইমধ্যে আমরা নিরাপদ সড়ক আইন প্রণয়ন করেছি। আমাদের দেশের মানুষ কিন্তু মোটেই সচেতন না। তাদেরকেও সচেতন হতে হবে। যারা রাস্তায় চলাচল করবেন, পারাপার হবেন, এই পারাপারের সময় আপনাকে ডানে-বামে সবদিক দেখে সচেতনভাবে পার হতে হবে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আবার রাস্তায় যারা যান চালাবেন, মোটরসাইকেল, গাড়ি, বাস ট্রাক চালাবেন তাদেরও সচেতন হতে হবে। কারণ অহেতুক একটা প্রতিযোগিতা করতে গিয়ে অনেক সময় সড়ক দুর্ঘটনা হয়। রাস্তায় যানবাহন চালানোর সময় সবাইকে একটা দায়িত্বশীল ভূমিকা নিতে হবে। তা না হলে দুর্ঘটনা ঘটবে। একটা দুর্ঘটনা ঘটলে শুধুমাত্র চালককে দায়ি করলে চলবে না। বরং কি কারণে দুর্ঘটনা ঘটল, তার জন্য যিনি পথচারী বা যিনি দুর্ঘটনা কবলিত যে চালক তাদেরও কি ভুল আছে, সেটাও দেখা দরকার।
সড়ক দুর্ঘটনায় সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অহেতুক এক একটা দুর্ঘটনা হয়। কেউ মারা যান, কেউ পঙ্গু হন, এক একটা পরিবার ভীষণভাবে কষ্টের সম্মুখীন হন। বিভিন্নভাবে তাদের জীবন মান আসলে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এই দিকটা সকলকেই দেখতে হবে।
সড়ক দুর্ঘটনায় সচেতন করতেই ট্রাফিক আইন মেনে চলার পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, আমি এটা সব সময় বলে আসছি, স্কুল থেকেই ট্রাফিক আইন সম্পর্কে আমাদের ছেলেমেয়েদের সচেতন করতে হবে। রাস্তায় কোন দিকে থেকে হাঁটতে হবে, সেটাও একটা শিক্ষণীয় বিষয়। কখন পারাপার হতে হবে সেটাও শিক্ষণীয় বিষয়। আমি মনে করি, আমাদের প্রতিটি স্কুলেও এই শিক্ষাটা স্কুল জীবন থেকেই একান্তভাবে দেয়া দরকার।

Share.

About Author

Leave A Reply