শিবচরের ঠিকানা ব্যবহার করে ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশকালে রোহিঙ্গা তরুনী আটক

0

শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি : পাসপোর্টে শিবচরের ঠিকানা ব্যবহার করে বাংলাদেশ থেকে ভারত গিয়ে আবার বাংলাদেশে প্রবেশকালে দর্শনা জয়নগর চেকপোস্টে এক রোহিঙ্গা তরুনীকে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা মডেল থানা পুলিশ আটক করে। পরে আটক রোহিঙ্গা তরুনী পাসপোর্টের ঠিকানা অনুযায়ী শিবচর থানা হস্তান্তর করা হয়। এসময় তরুনীর কাছে বাংলাদেশ সরকারের স্বরাষ্ট মন্ত্রনালয় থেকে প্রদানকৃত পরিচয়পত্র পাওয়া গেছে। সেখানে তাঁর নাম আজিদা, পিতা-আব্দুল খালেক, মাতা লালু ও জন্ম তারিখ ১লা জানুয়ারী ১৯৯৯ ইং ব্যহার করা হয়েছে ।
আটককৃত রোহিঙ্গা তরুনীর পাসপোর্ট সূত্রে জানা যায়, গত ১ আগষ্ট রোহিঙ্গা তরুনী সাহানা আক্তার (২৩) চুয়াডাঙ্গার দর্শনা জয়নগর ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে প্রবেশ করে। গত ২৯ অক্টোবর মঙ্গলবার সন্ধার দিকে ওই রোহিঙ্গা তরুনী ভারতের গেদে বর্ডার ইমিগ্রেশন দিয়ে বাংলাদেশের চুয়াডাঙ্গার দর্শনা জয়নগর ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট মাধ্যমে বাংলাদেশে প্রবেশের সময় ইমিগ্রেশন পুলিশ ওই তরুনীর কথার ধরণ দেখে সন্দেহ হওয়ায় ইমিগ্রেশন পুলিশ তাঁকে আটক করে দামুড়হুদা মডেল থানা পুলিশ প্রেরণ করে। পরে আটককৃত রোহিঙ্গা তরুনীকে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা মডেল থানা পুলিশ বুধবার রাত আনুমানিক ৮ টার দিক মাদারীপুরের শিবচর থানায় প্রেরণ করে। আটকৃত তরুনীর পাসপোর্টে তাঁর পরিচয় ব্যবহার করেছেন সে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার উমেদপুর ইউনিয়নের রামরায়েরকান্দি গ্রামের বাবুল দরানী মেয়ে, এবং মায়ের নামে ব্যবহার করেছেন বাবুল দরানীর স্ত্রীর নাম নিলুফা বেগম, জন্ম তারিখ ১৪ জুন ১৯৮৯ ইং ব্যবহার করেছেন।
এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে বাবুল দরানী থানা এসে আটককৃত তরুনী সম্পর্কে কিছুই জানে না বলে দাবি করেন। কে বা কারা তাঁর ঠিকানা ব্যাবহার করে এই রোহিঙ্গা তরুনীকে পাসর্পোট করে দিয়েছে। তাও সে জানে না।
শিবচর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমির হোসেন বলেন, ‘রোহিঙ্গা তরুনীর পাসপোর্টে শিবচরের ঠিকানা থাকায় দামুড়হুদা মডেল থানা পুলিশ তাঁকে আমাদের কাছে হস্তান্তর করেছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে তাঁকে ৩১ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দুপুরের তাঁকে মাদারীপুর আদালতে প্রেরণ হবে।’

Share.

About Author

Leave A Reply