দারুচিনি-মধুর যত গুণ

0

স্বাস্থ ডেস্ক: রোগ প্রতিরোধ নিরাময়ের জন্য আদিকাল থেকে মানুষ মধু ও দারুচিনি ব্যবহার কারে আসছে। এই দুটি বস্তুর মধ্যে রয়েছে অসাধারণ গুণ যা বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত।
সাম্প্রতিক সময়ে বিজ্ঞানীরা বলছেন, মধু হচ্ছে প্রায় সব ধরনের রোগের মহা ওষুধ, যা সব ধরনের রোগের জন্য ব্যবহার করা যায়। এমনকি মধু মিষ্টি হলেও ডায়বেটিস রোগীরা এটিকে ওষুধ হিসেবে নির্দিষ্ট পরিমাণ খেতে পারেন।
রোগ নিরাময়ে মধু এবং দারুচিনির :
অম্ল ও গ্যাস : বিজ্ঞানীদের গবেষণা মতে, যখন দারুচিনি গুঁড়ার সঙ্গে মধু খাওয়া হয় তখন তা পেটে গ্যাস উপশম করতে সহায়তা করে।
বাত : বাত রোগীরা নিয়িমিত দুই বেলা প্রতিদিন সকালে এবং রাতে দুই চা চামচ মধু এবং এক চা চামচ দারুচিনি গুঁড়া এক কাপ গরাম পানিতে মিশিয়ে খেলে দীর্ঘস্থায়ী বাত থেকে নিরাময় লাভ করা যায়।
ঠান্ডাজনিত সমস্যা : সাধারণ ঠান্ডা বা গুরুতর ঠান্ডায় যারা ভুগছেন তারা প্রতিদিন ১/৪ চা চামচ দারুচিনি গুঁড়ার সাথে সামান্য গরম পানি মিশিয়ে এক চা চামচ মধু খান। দেখবেন তিন দিন ধরে এই পক্রিয়ায় খেলে দীর্ঘস্থায়ী কাশি, ঠান্ডা এবং সাইনাসের সমস্যা দূর হয়ে যাবে।
ওজন কমানো : ওজন কামানোর জন্য সকালের নাস্তার আধ ঘণ্টা আগে খালি পেটে এবং এ রাতে ঘুমোবার আগে, মধু এবং দারুচিনি গুঁড়া এক কাপ ফুটান্ত পানির সাথে মিশিয়ে পান করুন। এর মাধ্যমে এটা আপনার শরীরের অতিরিক্ত মেদ কমাবে।
ক্যান্সারে প্রতীকার: জাপান ও অস্ট্রেলিয়ায় সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গেছে যে রুগী পেট এবং হাড়ের ক্যান্সারে ভুগছেন তারা প্রতিদিন তিন বার করে এক চা চামচ দারুচিনি গুঁড়ার সাথে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে তিন মাস খেলে ভালো ফালাফল আসা করতে পারেন।
হৃদরোগ : যেভাবে জ্যাম এবং জেলির খাওয়া হয়, ঠিক সেভাবে মধু ও দারুচিনি গুঁড়ার একটি পেস্ট করে পাঊরুটি দিয়ে প্রতিদিন সকালের নাস্তায় খান। এটা ধমনীতে কলেস্টেরল কমায় এবং হার্ট অ্যাটাক থেকে রাক্ষা করে। উপরন্তু, যারা ইতোমধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত তারা প্রতিদিন এই প্রক্রিয়া প্রতিদিন মধু ও দারুচিনি গুঁড়ার পেস্ট খেলে হার্ট অ্যাটাক থেকে রাক্ষা পাবেন। এছাড়াও যাদের শ্বাসকষ্ট আছে তাদের কষ্ট দূর হবে।
চুল পরা : অনেক বড় একটা সমস্যা হলো চুল পড়া। আর এ চুল হারানো রোধ করতে এক চা চামচ মধুর সাথে এক চা চামচ দারুচিনির গুড়া মিশিয়ে প্রতিদিন সকালে এবং বিকেলে খান। ভালো ফলাফল পাবেন।
হজমে সমস্যা : এক চামচ দারুচিনির সাথে দুই চামচ মাধু মিশিয়ে খাওয়ার আগে খেয়ে নিন। হজমের সামস্যা অনেকটাই দূর হয়ে যাবে।
কলেস্টেরল : দুই চা চামচ মধু এবং তিন চা চামচ দারুচিনি পাউডার এক কাপ পানিতে মিশিয়ে পান করুন প্রতিদিন। এতে দুই ঘণ্টার মধ্যে রক্ত কলেস্টেরলের মাত্রা ১০% হ্রাস পাবে। তাছাড়া প্রতিদিন তিনবার করে খেলে দীর্ঘস্থায়ী কলেস্টেরল নিরাময় হয়।
মূত্রাশয় সংক্রমণ : এক গ্লাস অল্প গরম পানিতে দুই চা চামচ দারুচিনি গুঁড়া এবং এক চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করুন। এটা মূত্রাশয়ে জীবাণু ধ্বংস করে।
পেটের সমস্যা : মধু দারুচিনি গুঁড়া পেটব্যথা, বধ হজম দূর কারতে জাদুকরী ফল দেয়।
চিরতরুণ : চিরতরুণ থাকতে চান? এক চা চামচ মধু আর ১/৪ চা চামচ দারুচিনি পাউডার গরাম পানিতে মিশিয়ে চা বাণীয়ে দিনে তিন-চার বার পান করুন। এটা ত্বক পরিষ্কর রাখে এবং ত্বকের উজ্জ্বল্যতা ধরে রাখে।

Share.

About Author

Leave A Reply