প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেনকে কুড়িগ্রামবাসী পূর্ন মন্ত্রী হিসেবে পেতে চায়

0

আতিক রুবেল কুড়িগ্রাম থেকে ফিরে : প্রাথমিক ও গনশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে নিয়োজিত প্রতিমন্ত্রী মো:জাকির হোসেন এমপি কে কুড়িগ্রাম জেলার সাধারন জনগন তথা আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা পুর্ন মন্ত্রী হিসাবে পেতে চায়। কারন হিসাবে জানা যায় জাকির হোসেন এমপি সৎ ও দক্ষ একজন মানুষ। তিনি সাধারণ মানুষের সাথে অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে মিশে এলাকার উন্নয়নে কাজ করেন। তিনি অসহায় গড়িব মানুষের সাথে যেভাবে চলে, কথা বলে তেমনিভাবে কোন তৃনমূলের জনপ্রতিনিধিও চলে না বলে জানান একাধিক শিক্ষক ও রাজনৈতিক নেতারা। জাকির হোসেন নবম সংসদ নির্বাচনে প্রথম বারের মত এমপি নির্বাচিত হয়ে কুড়িগ্রাম-৪ আসনে ব্যাপক উন্নয়ন করেন। একাদশ সংসদ নির্বাচনেও আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন পেয়ে বিপুল পরিমাণে ভোট পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং শেখ হাসিনার মন্ত্রী সভার প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়ে গত দেড় বছর সফলতার সাথে মন্ত্রণালয়ের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। জাকির হোসেন প্রাথমিক ও গনশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিয়ে প্রথমেই ঢাকা সিটির সরকারি প্রাথমিক স্কুলে ঝটিকা সফরে গিয়ে দীর্ঘদিন অনুপস্থিত থাকা একাধিক শিক্ষকদের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়ার কারনে সকল স্কুলে শিক্ষকদের উপস্থিতি বেড়েছে এবং দায়িত্ব পালনে গাফেলতি কমেছে বলে বিভিন্ন সূএে জানাগেছে। গনশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব আবু ইউসুফ ভূইঁয়ার কাছে প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন কেমন মানুষ জানতে চাইলে তিনি বলেন আমার চাকুরী জীবন শেষ প্রান্তে কিন্তু এই সময়ের মধ্যে জাকির স্যারের মত এমন সদালাপী হাসিখুশি মাটির মানুষ আমি আর পাই নাই। তিনি অফিসের সাধারন কর্মচারী ও অফিসারদের মধ্যে কোন পার্থক্য খুজেননা। সকলকে মানুষ হিসেবেই মর্যাদা দেন। যা বতর্মান যুগে বিরল ঘটনা। রৌমারি উপজেলার প্রবিন আওয়ামীলীগ নেতা সুরুজ্জামান বলেন কুড়িগ্রাম চার আসনের জনপ্রিয় নেতা জাকির ভাই বতর্মান করোনা কালেও এলাকায় অবস্থান করে সমস্যাগ্রস্থ মানুষের পাসে থেকে খোজ নিয়েছেন, সরকারি ও ব্যক্তিগতভাবে এান সহায়তা দিয়েছেন, যা বিগত দিনে কোন নেতা করে নাই। আমরা জাকির হোসেন ভাইর প্রতি খুশি।
কুড়িগ্রাম জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আমান হোসেন মঞ্চু বলেন-মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমরা দাবি জানাই আমাদের প্রিয় জাকির ভাইকে পূর্ন মন্ত্রী হিসাবে নিয়োগ করা হোক।

Share.

About Author

Leave A Reply