গাংনী পৌরসভা নির্বাচনে প্রচারণাকালে হামলা

0

মেহের আমজাদ :
সবুজবাংলা২৪ডটকম, মেহেরপুর : মেহেরপুর জেলার গাংনী পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আশরাফুল ইসলাম ও তার সমর্থকরা প্রচারণার সময় আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী আহম্মেদ আলীর লোকজনের হাতে হামলার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় আশরাফুল ইসলামসহ তার পক্ষের ৭জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। অন্যদিকে আহম্মেদ আলীর পক্ষের ৬জন আহত হয়েছে বলে পাল্টা অভিযোগ পাওয়া গেছে। আশরাফুল ইসলামের পক্ষের গুরুতর আহতরা হলেন-গাংনী পৌর এলাকার বাঁশবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা ও ছাত্রলীগ নেতা আল জাবির প্লাবন (২৭),গাংনী থানা পাড়ার রোকনুজ্জামান হিরোন (২৫)। অন্যদিকে আহম্মেদ আলীর পক্ষের গুরুতর আহত হয়েছেন শিশিরপাড়া গ্রামের নাজমুল হোসেন (২৩) ও উজ্জল হোসেন (২৪)। গত সোমবার দুপুর ১টার দিকে গাংনী পৌরসভার (২ নং ওয়ার্ড) শিশিরপাড়া গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার সময় আশরাফুল ইসলামের কাছে থাকা লাইসেন্সকৃত ৯ রাউন্ড গুলিসহ ব্যক্তিগত রিভলবার (৭.৬ ক্যালিবার) হামলাকারীরা ছিনিয়ে নিয়েছে বলে আশরাফুল ইসলাম অভিযোগ করেন। স্থানীয়রা জানান এ দিন দুপুরে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম ও তার লোকজন নিয়ে বাড়ি বাড়ি ভোট চাচ্ছিলেন। এ সময় আওয়ামীলীগ মেয়র প্রার্থী আহম্মেদ আলীর লোকজনও নির্বাচনী প্রচারণা করছিলেন। এক পর্যায়ে আহম্মেদ আলী ও আশরাফুল ইসলামের লোকজনের মধ্যে হামলা পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় দু’টি গুলির শব্দ শোনা যায়। প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম জানান, আমি লোকজন নিয়ে নির্বাচনী কাজে ব্যস্ত ছিলাম। আওয়ামীলীগ প্রার্থী আহম্মেদ আলীর লোকজন আমাদের উপর হামলা চালাতে থাকে। হামলার ১৪ জন আহত হয়। হামলার সময় হামলারকারীরা আমার কাছ থেকে লাইসেন্স করা রিভলবার কেড়ে নিয়ে পরপর ৩টি ফাঁকা গুলি চালায়। আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী আহম্মেদ আলী জানান এগুলো মিথ্যা কথা। আমার লোকজন নির্বাচনী আচরণ মেনে গুটি কয়েক কর্মী শিশিরপাড়া গ্রামে নির্বাচনী কাজ করছিল। স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম তার লোকজনদের নিয়ে আমাকেসহ আমার কর্মীদের উপর হামলা চালায়। হামলায় ৬জন কর্মী আহত হয়। এর মধ্যে নাজমুল হক নামের এক কর্মীর শারীরিক অবস্থা খুব খারাপ। নির্বাচনের সময় ব্যক্তিগত বৈধ আগ্নেয়াস্ত্র অবৈধ হিসেবে বিবেচিত। আশরাফুল ইসলামের আগ্নেয়াস্ত্রটি জব্দ ও তাকে গ্রেপ্তারের দাবী জানান তিনি। এদিকে উভয় পক্ষের গুরুতর আহতরা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম তাৎক্ষনিকভাবে সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে আশরাফুল ইসলাম বলেন আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী আহম্মেদ আলী নির্বাচন উপলক্ষে বহিরাগতদের নিয়ে এনে গাংনী শহরের বিভিন্ন স্থানে রেখে দিয়েছেন। জোর করে নির্বাচনে জয় লাভ করার আশায় এ সব বহিরাগতদের নিয়ে এসেছেন। এ ঘটনায় হামলারকারীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে। গাংনী থানার ওসি বজলুর রহমান জানান, এ খবর শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে এবং পরিস্থিতি শান্ত হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Share.

About Author

Leave A Reply