ব্যান্ডশিল্পী ও গিটার জাদুকর আইয়ুব বাচ্চুর ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী

0

কাজি আরিফ হাসান :
সবুজবাংলা২৪ডটকম, ঢাকা : ২০১৮ সালের এ দিনে না ফেরার দেশে চলে যান কিংবদন্তি জনপ্রিয় ব্যান্ডশিল্পী ও গিটার জাদুকর আইয়ুব বাচ্চুর। আজ এই গুনি ও জনপ্রিয় শিল্পী ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী।
আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার থেকে সাংবাদিকদের জানান, আমরা পারিবারিকভাবে দোয়ার আয়োজন করি এবারও করব। কয়েকটি এতিমখানায় বাচ্চাদের জন্য খাবার পাঠানো হবে। এছাড়া আজ সন্ধ্যায় মগবাজারে ঢাকাস্থ চট্টগ্রাম মিউজিসিয়ান’স ক্লাব এ শিল্পীর কিংবদন্তি আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়ার আয়োজন করেছে বলে জানতে পারা যায় ।
বাংলা ব্যান্ড সঙ্গীতকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন আইয়ুব বাচ্চু। গিটারের জাদুতে মুগ্ধ করেছেন অসংখ্য শ্রোতাদের। আইয়ুব বাচ্চু ১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন । ১৯৭৭ সালে তিনি যোগ দেন ‘ফিলিংস’ ব্যান্ডে। তিনি কলেজ লেখাপড়াকালে ‘আগলি বয়েজ’ নামে ব্যান্ড দল গঠন করেন আইয়ুব বাচ্চু। ৮০ সাল পর্যন্ত এ দলের সাথে কাজ করেন। এরপর আইয়ুব বাচ্চু ‘সোলস’ ব্যান্ডের প্রধান গিটারবাদক হিসেবে যোগ দেন।
এই গুনি শিল্পী ‘সোলস’ ব্যান্ডের হয়ে ৪টি এ্যালবামে কাজ করেছিলেন । ১৯৯১ সালে নিজের ব্যান্ড গঠন করেন তিনি। নাম দেন ‘লিটল রিভার ব্যান্ড’। পরে নাম পরিবর্তন করে এ দলের নাম রাখা হয় ‘লাভ রান্স ব্লাইন্ড’, সংক্ষেপে ‘এলআরবি’। মৃত্যুর পূর্বে পর্যন্ত এ দলের সাথেই ছিলেন আইয়্ ুবাচ্চু।
আইয়ুব বাচ্চু ২৭ বছর ‘‘এলআরবি” আকড়ে ধরে চলেছেন । ব্যান্ড দলকে তিনি নিয়ে গেছেন দুরে। এবং সেই সাথে নিজের জনপ্রিয়তা। আইয়ুব বাচ্চুর ১৯৮৬ সালে প্রকাশ হয় ১ম একক এ্যালবাম ‘রক্ত গোলাপ’ প্রকাশ পায়।  এরপর একের পর এক (১৯৮৮ সালে) ২য় এ্যালবাম ‘ময়না’ প্রকাশ হয়, ১৯৯৫ সালে ‘কষ্ট’ এ্যালবামে প্রকাশ পর অনেক জনপ্রিয়তা অর্জন করেন ‘এলআরবি’ আর আইয়ুব বাচ্চু। আইয়ুব বাচ্চু ২০০৭ সালে ‘সাউন্ড অব সাইলেন্স’ প্রকাশ করেছেন ।
১৯৯১ সালের ৩১ জানুয়ারি ফেরদৌস চন্দনাকে বিয়ে করেন আইয়ুব বাচ্চু। তাদের ২ সন্তান আহনাফ তাজওয়ার আইয়ুব ও ফাইরুজ সাফরা আইয়ুব । ২০১৮ সালের ১৮ অক্টোবর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়তে লড়তে মৃত্যু বরন করেন  তিনি। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে সারা দেশে। গিটার কাঁধে নিয়ে অসংখ্য ভক্তরা এসেছিলেন তাকে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদনে।
ভক্তদের হৃদয়ে আজও ‘গিটার জাদুকর’ হয়ে আছেন এই গুনি শিল্পী । থাকবেন বাংলা ব্যান্ড সঙ্গীত যতদিন থাকবে। তার প্রতি গভীরশ্রদ্ধা জানানোর জন্য চট্টগ্রামে প্রবর্তক মোড়ে গিটারের একটি ভাস্কর্য স্থাপন হয়েছে। তার এক গিটারের নাম দেওয়া হয় ‘রূপালী গিটার।’ আইয়ুব বাচ্চুর জনপ্রিয় গানের শিরোনাম অনুসারে এ গিটারে নামকরণ করা হয়েছে ।
এই গুনি শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু গানের কথা মতোই ‘রূপালী গিটার’ ফেলে বহুদূরেই চলে তার ভক্তদের ফেলে রেখে । রেখে গেলেন তার হাতে গড়া এলআরবি ব্যান্ড। ভালো থাকবেন গুনি শিল্পী । আমরাও আইয়ুব বাচ্চুর ৩য় মৃত্যুবার্ষিকীতে হাজারও ভক্তের মতো তাকে স্মরণ করছি । তিনি বেচে থাকাবে হাজারও ভক্তদের মাঝে।

Share.

About Author

Leave A Reply