২ ভিক্ষুককে পুর্নবাসিত করেছেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহি অফিসার

0

রেজাউল করিম লিটন :
সবুজবাংলা২৪ডটকম, চুয়াডাঙ্গা : দারিদ্রের কষাঘাতে ভিক্ষাবৃত্তিই ছিল তাদের অবলম্বন। মানুষের দ্বারে দ্বারে হাত পেতেই চলতো তাদের জীবন-জীবিকা। তবে এখন আর কারো কাছে হাত পাতবেনা তারা। ব্যবসা করার ব্যবস্থা করে দিয়ে এ রকম দুজন ভিক্ষুককে পুর্নবাসিত করেছেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোহাম্মদ সাদেকুর রহমান।
চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের রহিমা বেগম আর শংকরচন্দ্রের হায়দার মালিথা। ভিক্ষাবৃত্তিই ছিল যাদের পেশা। ভিক্ষা করোই চলতো তাদের জীবন। তবে এ ভিক্ষা করা ভালো লাগতো না তাদের। ইচ্ছে ছিল ভিক্ষা ছেড়ে কাজ করে খাবে তারা। কিন্তু তাদের স্বাবলম্বী হতে সাহায্য করবে কে? এক পর্যায়ে বিষয়টি জানতে পারেন সদর ইউএনও সাদেকুর রহমান। তিনি এ দুজন ভিক্ষুককে পুর্নবাসিত করার উদ্যোগ নেন।
ইউএনও সাদেকুর রহমান জানান, সরেজমিন খোঁজ-খবর নিয়ে তাদের সাথে আলোচনা করে জানতে পারি রহিমা বেগম কাপড়ের ব্যবসা করতে আগ্রহী। যেটা সে গ্রামে বিভিন্ন বাড়ি গিয়ে বিক্রি করতে পারবে। আর হায়দার মালিথা নিজের বাড়ির পাশে ছোট্র একটি দোকান করতে পারবে। এরপর উপজেলা সমাজ সেবা অফিসের সহায়তায় এবং সরকারি সাহায্যে তাদেরকে পুর্নবাসিত করার উদ্যোগ নেয়া হয়।
তিনি আরো জানান, এভাবে আরো কিছু ভিক্ষুককে পুর্নবাসিত করা হবে। আমরা চাই তারা স্বাবলম্বী হোক। ভিক্ষাবৃত্তির মতো ঘৃন্য পেশায় যেন তাদের আসতে না হয়।

Share.

About Author

Leave A Reply