বীরগঞ্জে ওএমএস কেন্দ্রে ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড়

0

নিজস্ব প্রতিনিধি :
সবুজবাংলা২৪ডটকম, দিনাজপুর : দিনাজপুরের বীরগঞ্জ পৌরসভার তিনটি পয়েন্টে ওএমএসের কেন্দ্রগুলো থেকে ন্যায্যমূল্যে চাউল ও আটা কিনতে সাধারণ কর্মহীন মানুষের উপচে পড়ার ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এইসব কেন্দ্রে ভোর থেকে এসে লাইন দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে ক্রেতা সাধারণদের। দীর্ঘদিন ধরে চলমান করোনা মহামারি ও টানা লকডাউনে শ্রমজীবী মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়ায় এতে ভিড় বলে সাধারণভাবে মনে করা হচ্ছে। চাহিদার তুলনায় বরাদ্দ কম থাকায় অনেক মানুষ চাল বা আটা না পেয়ে খালি হাতে ফিরে যাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল কাদের বৃহস্পতিবার ফোনে বলেন, সরকার নির্ধারিত মূল্যে খোলাবাজারে চাল ও আটা বিক্রি করার জন্য ২৫ জুলাই থেকে বীরগঞ্জ পৌরশহরের তিন প্রান্তে ৬ জন ডিলার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। প্রতি ডিলারকে দৈনিক দেড় টন চাল ও এক টন আটা বরাদ্দ দেওয়া হয়।
কেন্দ্র গুলী হতে থেকে জনপ্রতি ৩০ টাকা কেজি দরে দৈনিক পাঁচ কেজি চাল ও ১৮ টাকা কেজি দরে তিন কেজি আটা বিক্রি শুরু ওই ডিলারদের মাধ্যমে লকডাউনের মধ্যে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত চাল ওআটা বিক্রি করবে।
পৌরশহরের হাটখোলায় ওএমএসের ডিলার ইয়াসমিন আলী জানান, প্রতিদিন দেড় টন চাল ৩০০ জনের মধ্যে ও এক টন আটা ৩০০ জনের মধ্যে বিক্রি করা সম্ভব হচ্ছে। সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত লাইনে দাঁড়িয়ে সবাই চাল ও আটা কিনছেন।
পৌরশহরের বলাকা মোড় কালী মন্দিরে দীপঙ্কর রাহা বাপ্পি ডিলারের কেন্দ্রে ওএমএসের চাল কিনতে মানুষে উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গিয়েছে। সেখানে কোনো রকম স্বাস্থ্যবিধির বলাই নেই।

এসিল্যান্ডের বিদায়ী ও বরণ অনুষ্ঠান
দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ ডালিম সরকারকে বিদায়ী ও নবাগত মোঃ কামাল হোসেনকে বরণ অনুষ্ঠান হয়েছে।
উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে অফিসার্স ক্লাবের আয়োজনে বুধবার বিকেলে ইউএনও মোঃ আব্দুল কাদের এর সভাপতিত্বে বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
এসময় উপজেলা প্রকৌশলী মো. আব্দুল মান্নাফ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. ছানাউল্লাহ, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা হিমেল চন্দ্র রায়, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. জাকিরুল ইসলাম, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ আবু রেজা মো. আসাদুজ্জামান, উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলীর উপ সহকারী মো. হুমায়ুন কবির সহ উপজেলা বিভিন্ন দপ্তর ও উপজেলা ভূমি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে বিদায়ী ও নবাগত সহকারী কমিশনার (ভূমি) কে ফুলেল শুভেচ্ছা ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।
জানা যায়, নবাগত এসিল্যান্ড মো. কামাল হোসেন এর বাড়ি কুষ্টিয়া জেলায়। ৩৫ তম বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারে অন্তর্ভুক্ত হয়ে কর্মজীবন শুরু করেন।
বীরগঞ্জ উপজেলায় যোগদান করার আগে, তিনি রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে কর্মরত ছিলেন।
উল্লেখ্য যে,সদ্য বিদায়ী এসিল্যান্ড মো.ডালিম সরকার বীরগঞ্জ উপজেলায় ২০২০ সালের ০৩ জুন তারিখে যোগদান করে সৎ, নিষ্ঠাবান, সুনাম ও দক্ষতার সহিত কাজ করে গেছেন। তাঁকে সমপদে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে বদলী করা হয়েছে। তিনি সেপ্টেম্বর মাসে এক বছরের জন্য যুক্তরাজ্যের ম্যানচেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ে এমএসসি করতে যাবেন।

Share.

About Author

Leave A Reply